You are here: Home / শখের বাগান / যেভাবে তৈরী করবেন কোকেডামা

যেভাবে তৈরী করবেন কোকেডামা

হাওয়াই বাগান কোকেডামা শিরোনামের আর্টিকেল যারা ইতিমধ্যে পড়ে ফেলেছেন তারা নিশ্চয়ই কোকেডামা সম্পর্কে একটা ধারণা হয়ে গেছে তবু বলে নিচ্ছি কোকেডামা কি? সহজ কথায় এটা জুলন্ত বাগানের একটা পদ্ধতি যেখানে নির্দিষ্ট প্রক্রিয়ায় সিলিং কিংবা সমতল থেকে উপরে কোন কিছুতে গাছ ঝুলিয়ে রাখা হয়। সাধারনত বনসাই বানানোর জন্যে যেসব গাছ ব্যবহার করা হয় তা দিয়ে এই বাগান বানানো যায়। তবে অর্কিড দিয়ে কোকেডামা সম্ভব। আসুন দেখে নেয়া যাক কীভাবে কোকেডামা তৈরি করা যায়ঃ

কোকেডামা

প্রয়োজনীয় উপকরণঃ

  • প্রথমেই গাছ নির্বাচন। ছোট জাতের গাছ। মস সরাসরি সূর্যালোক সহ্য করতে পারেনা, তাই ছায়ায় বেড়ে উঠতে পারে এমন ইনডোর প্ল্যান্ট নির্বাচন করতে হবে। আমি ব্যাবহার করেছি ছোট ফার্ন, ঘাস, আর বেগুনী বর্ণের ফুলগাছ।
  • পিট মাটি (জৈব সার বিশিষ্ট পচা কালো মাটি, সাধারণত জলাধারের কাছে এ ধরণের মাটি পাওয়া যায়)
  • আকেডামা (বনসাই তৈরির জন্য ব্যাভহ্রত বিশেষ ধরণের পাথুরে মাটি অথবা একুরিয়ামের তলদেশে ব্যাবহার করা মাটি বিশেষ অথবা যে কোন ধরণের পাথুরে মাটি)
  • শুঁকনো মস
  • কেঁচি
  • তুলার সূতা
  • ঝুলানোর জন্য প্যাঁচানো সূতা, পাঁটের সুতা
  • দস্তানা
  • এক জার পানি
  • তাজা মস (পুরনো দেয়াল বা পচা কাঠ থেকে সংগ্রহ করতে পারেন)

কার্যপদ্ধতিঃ 

১। নির্বাচিত গাছের শিকড় থেকে সব মাটি আস্তে আস্তে উঠিয়ে ফেলতে হবে।

কোকেডামা
২। মাটি তৈরিঃ মাটি তৈরির জন্য (সাত (৭) ভাগ পিট মাটি এবং তিন (৩) ভাগ আকেডামার মিশ্রন তৈরী করতে হবে। পিট মাটি এবং আকেডামা একসাথে ভালোভাবে মেশাতে হবে। তারপর একে দুই হাত দিয়ে ধরে গোল বলের আকার দিতে হবে।

কোকেডামা
৩। বলটি এমনভাবে তৈরি করতে হবে যেন শেকড় মেলার জন্য পর্যাপ্ত জায়গা থাকে (গাছের শিকড়ের আকারে ছিদ্র করতে হবে)।
৪। একমুঠো শুঁকনো মস বা ঘাস বা খড় দিয়ে গাছের শিকড় গোলাকৃতির মত করে পুরোপুরি ঢেকে দিতে হবে।
৫। এরপর তুলার সূতা দিয়ে পুরোটা দুই তিন বার পেঁচাতে হবে।
৬। গাছ লাগানঃ এবার গোল বলের মাঝখানে একটা গর্ত করতে হবে। তারপর গাছটিকে সেখানে লাগাতে হবে। খেয়াল করতে হবে গর্তটা যেন শিকড়ের আকারে হয়।

কোকেডামা
৭। হুম!! এখন সবচেয়ে মজার পর্ব, মস বল তৈরির পালা। তাজা মস দিয়ে বাইরের পুরো আবরণটি ঢেকে দিতে হবে (কোন জায়গা যেন খালি না থাকে)। উপহারের জিনিষ যেভাবে মোড়ানো হয় বলটিকে প্যাঁচানো সুতা বা পাঁটের সুতা দিয়ে ঠিক একই ভাবে মোড়াতে হবে। আর ঝুলানোর সুবিধার জন্য সুতার একটি অংশ ইচ্ছানুযায়ী লম্বা রাখা যেতে পারে।

কোকেডামা

কোকেডামা
৮। ঝুলানোর পালাঃ ঝুলানোর জন্য অবশ্যই ছায়াময় স্থান নির্বাচন করা উচিত। এবার একটি হুক বা আংটার সাথে মস বলটিকে ঝুলিয়ে দিন।

কোকেডামা
৯। জল সেচনঃ প্রতিদিন সকালে একবার স্প্রে করার বোতল দিয়ে পানি দিতে হবে (যাতে শিশিরের মত একটা আদ্রতা তৈরি হয়)।

কোকেডামা

আকেডামা

মস

শুঁকনো মস

 

 

 কোকেডামা সম্পর্কে বিস্তারিত

Leave a Reply

Scroll To Top