You are here: Home / ঘর সাজাই / ওয়ান টাইম গ্লাস দিয়ে ঝাড়বাতি

ওয়ান টাইম গ্লাস দিয়ে ঝাড়বাতি

এবার দিলাম প্ল্যাস্টিকের গ্লাস দিয়ে ল্যাম্প বানানোর প্রক্রিয়া যা দেখতে অনেকটা ঝাড়বাতি এর মত। দেশজুড়ে প্ল্যাস্টিকের জিনিষের ব্যাবহার যেন রমরমা। পরিবেশ কিংবা শরীরের জন্য খারাপ হোক প্ল্যাস্টিকের জিনিস ছাড়া যেন জীবনই অচল। আর প্ল্যাস্টিকের জিনিষের উৎপাদন কারীরা পারলে রান্না করার পাতিলও যেন প্ল্যাস্টিকের বানিয়ে দেন।

ঝাড়বাতি

কদিন আগে প্রকৃতি সম্পর্কে একটি বক্তব্য শুনলাম, বিডি ন্যাচার ক্লাবে। শুনে তো আমি পুরো টাস্কি খেলাম যেন। যাই হোক এখানে বক্তব্যের কথা নাই শুরু করি। তবে বক্তব্যের মূল বিষয় ছিল “পরিবেশের উপর প্ল্যাস্টিকের কুপ্রভাব” একজন সমাজ সচেতন কারি হিসেবে কামনাকারী হওয়ার কারনে প্ল্যাস্টিক থেকে মুক্ত হওয়া সম্পর্কে পড়তে লাগলাম। পড়ে জানলাম যে প্লাস্টিককে রিসাইকেল করা ছাড়া কোনও উপায় নেই। আগুনে পুড়লে বায়ু দূষণ, মাটিতে থাকলে উর্বরতা কমে। তাই রিসাইকেল করে যতটা ব্যাবহার কমিয়ে ফেলা যায় ততই মঙ্গল। ।

যা যা লাগবে জেনে, লেগে পড়ুনঃ

ঝাড়বাতি
১। ২০০-২৫০টি বড় প্ল্যাস্টিক কাপ
২। ৬০০-৭০০ স্টাপেল
৩। একটি স্টাপ্লার
৪। একটি ল্যাম্প সকেট , ল্যাম্প প্লাগ, এবং ল্যাম্প কর্ড (যা পুরোটাই একটি ভাঙা আইকেইএ লাম্প থেকে পাওয়া যায়!!!)

যেভাবে করবেনঃ

ঝাড়বাতি

ঝাড়বাতি

প্রথমে তিনটি প্ল্যাস্টিক কাপ নিন। তিনটির একদম মাথায় এবং ভিতরে একটি আরেকটির সঙ্গে গ্লু দিয়ে লাগাতে থাকুন। আপনাদের সুবিধার জন্য একটি গ্রাফ ইমেজ দেয়া হয়েছে।

ঝাড়বাতি

একটির সাথে একটি লাগালে থাকলে এরকম  এক সময় দেখতে এইরকম চিত্রের মত হবে।

ঝাড়বাতি

এভাবে  এইরকম গোল হওয়ার আগ পর্যন্ত স্টাপেল করতে থাকুন। কাজটা ঘনিয়ে আসলে মানে আকারটা গোলাকার হওয়ার আগে লাইটটি ভিতরে বসিয়ে দিতে হবে।

ঝাড়বাতি

ব্যাস দেখতে দেখতেই আপনাদের কাজ সম্পন্ন হয়ে গেল…প্লাগ লাগান, আর বিদ্যুৎ সংযোগ দিন।

Leave a Reply

Scroll To Top