You are here: Home / পেট / পাখি পালনের পূর্ব প্রস্তুতি

পাখি পালনের পূর্ব প্রস্তুতি

পাখি পালা অনেক লাভ জনক । পাখি অনেক দামে বিক্রি হয়। এলাকার বড় ভাই কিংবা বন্ধুরা অনেকেই পাখি পালন করে বেশ লাভবান হচ্ছেন । এ ভাবেই অনুপ্রাণিত হয়ে অনেকের পাখি  পালনের শুরু। কথায় আছে হুগুগে বাঙ্গাল । একজন কোন একটা কিছু করে লাভবান হলে সবাই দলবেঁধে সেদিকেই ছুটে তারপর চালচুলো সবকিছু হারিয়ে সর্বশান্ত না হওয়া পর্যন্ত এভাবেই চলতে থাকে। তার পর কিছু না বুঝেই সর্বস্ব বিনিয়োগ এবং  সর্ব শান্ত। তাদের উদ্যেশ্যই আমার কথা গুলো বলা। আপনার যদি পাখি সম্পর্কে ন্যুনতম জ্ঞান না থাকে তবে এ সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন না করে খেয়ালের বশে পাখি পালন করতে আসবেন না। পাখির প্রতি যদি ভালো বাসা না থাকে তাহলে আর যাই হোক পাখি পালন করার কোন নৈতিক অধিকার আপনার নেই। ব্যবসাই যদি আপনার পাখি পালনের উদ্যেশ্য থাকে তাহলে দয়া করে পাখি না পেলে অন্য কিছু করতে পারেন। দীর্ঘদিন ধরে একজন পাখি পালক হিসেবে আপনাদের কাছে আমার অনুরোধ।

তাই পাখি পালতে হলে আপনাকে এ নিয়ে একটু গবেষণা করতে হবে, পাখি সম্পর্কে দুই চারটি বই পড়ে নিতে পারেন এতে কিছু ধারনা সৃষ্টি হবে। ইন্টারনেটে পাখি সম্পর্কে অনেক ব্লগ আছে সেগুলো থেকেও আপনি ধারণা নিতে পারেন। কয়েকজন পাখিপালন কারির সাথে পরিচিত হতে পারেন। তাদের সাথে কিভাবে পাখিপালন শুরু করা যায় এ সম্পর্কে ধারণা নিতে পারেন। ফেইসবুকে পাখি প্রেমীদের অসংখ্য গ্রুপ অথবা পেইজ আছে , আপনার ফেইস বুক পেইজের সাথে সেগুলোকে অ্যাড করে নিতে পারেন। পাখি প্রেমীরা খুবই আন্তরিক খাঁচা , ঔষধ কিংবা খাবার কোথায় পাবেন, রোগ ব্যাধি হলে কি করবেন কিংবা পাখিপালন নিয়ে যে কোন সমস্যায় গ্রুপ গুলোতে পোষ্ট করতে পারেন অভিজ্ঞরা উত্তর দিয়ে দিবেন।

লাভ বার্ড পাখি

পাখির জগতে আপনি যদি একদম নতুন হন তাহলে এক কিংবা দুই জোড়া বাজরিগর নিয়ে শুরু করতে পারেন। তাহলে পাখি কি জিনিস এটা আপনি বুঝতে পারবেন।  একবার ঠিকভাবে ব্রিডিং করাতে পারলেই মোটামুটি ধারণা সৃষ্টি হবে এরপর আস্তে আস্তে আপনার পাখির পরিমাণ বাড়াতে পারবেন। তখন পেশা হিসেবে পাখি পালন নিতে চাইলেও নিতে পারবেন কোন সমস্যা হবে না তবে একটা পর্যায় পর্যন্ত আপনাকে সময় দিতেই হবে।
পাখিরা খুবই স্পর্শকাতর আমাদের মত তাদের সহ্য ক্ষমতা নয় এ বিষয়টি বুঝতে হবে। তাপমাত্রার পরিবর্তন পাখির শরীরের উপর প্রভাব ফেলে । আপনি যে ঘরটি পাখি পালনের জন্য বেছে নিবেন সেটিতে অবশ্যই আলো বাতাসের পর্যাপ্ত ব্যাবস্থা থাকতে হবে। আপনার পাখি পালনের ঘরটি যদি ছাদের উপরে হয় ঘর ঠাণ্ডা করার জন্য অবশ্যই একটা সাধারণ ফ্যান সম্ভব হলে এক্সাসর্ট ফ্যান দিতে হবে। লাইটের সুব্যাবস্থা থাকতে হবে । সব টাকা পয়সা একবারে খরচ করে ফেলবেন না কিছু টাকা হাতে রাখবেন যাতে প্রয়োজনে ঔষধ পথ্য কিনতে পারেন। অবশ্যই পাখিকে নিয়মিত খাবার দিতে হবে। খাবারের অনিয়ম পাখির ব্রিডিং এ সমস্যা তো হয়ই বাচ্চা পাখি খাবারের অভাবে মারাও যেতে পারে। আর কিছু কিছু বিষয় অবশ্যই খেয়াল রাখলে পাখি পালন আপনার জন্য সমস্যা নয় বরং আশীর্বাদ হিসেবেই দেখা যাবে।

Leave a Reply

Scroll To Top