You are here: Home / পার্থিব / কিভাবে খাবার থেকে ফরমালিন দূর করবেন

কিভাবে খাবার থেকে ফরমালিন দূর করবেন

ফরমালিন আমাদের অতি পরিচিত একটি শব্দ। আমাদের দেশে মনে হয় না এমন  কোন লোক পাওয়া যাবে যে এই শব্দটার সাথে পরিচিত না। কিন্তু কয়েক বছর আগেও এটি যারা মেডিকেল সংক্রান্ত কাজে নিয়োজিত তারাই এই শব্দ সম্পর্কে জানত। আমি মেডিকেলের ছাত্র না হলেও এই কেমিক্যালের বহুবিদ ব্যবহার আমাকেও এই শব্দটির সাথে পরিচয় করিয়ে দিয়েছে। আমি যতটুকু জানি এই কেমিক্যালটি মৃতদেহকে দীর্ঘক্ষণ সংরক্ষণ করার কাজে ব্যবহার হত। কিন্তু বিধিরাম এই ফরমালিনই এখন আমাদের খাবারের অপরিহার্য অংশ !!! যদিও আমরা কেউই এই কেমিক্যাল ইচ্ছাকৃতভাবে খাই না। আমরা খেতে বাধ্য হই। বেঁচে থাকার জন্য খাবারের প্রয়োজন হয়তবা এ জন্যই। তা ছাড়া শহরের বাসিন্দাদের তো আর নিজের ক্ষেতের/ বাগানের তাজা সবজি, পুকুরের মাছ খাওয়ার কোন সুযোগ নেই অগত্যা বাধ্য হয়েই  বাজার থেকে কিনেই খেতে হয়।  আমাদের দেশের কিছু কিছু ব্যাবসায়ি !!!! অধিক মুনাফার জন্য এই কেমিক্যাল খেতে বাধ্য করছে। এমন কোন খাবার নেই যেটিতে এই বিষ তারা মেশাচ্ছে না। দেশের কিছু কিছু বাজার ফরমালিনমুক্ত ঘোষণা করা হলেও সেটা আসলে কতটা ফরমালিন মুক্ত তা নিয়ে সন্দেহ থেকেই যায়। মোবাইল কোর্ট মাঝে মাঝে বাজারে হানা দিলেও ফরমালিন বহাল তবিয়তেই আছে। মনে হচ্ছে নিজেদের সচেতন হওয়া ছাড়া ফরমালিন রোধের আর কোন রাস্তা নেই। ফরমালিন ফরমালিনের ক্ষতিকর দিক ফরমালিনের ক্ষতিকর দিক থেকে ফরমালিন শরীরের কোন কোন অংশের ক্ষতি করে না এটি লেখাই হয়ত সবচেয়ে সহজ হত। মানব শরীরের এমন কোন অংশ নেই যা এই কেমিক্যালের দ্বারা ক্ষতিসাধন হয় না। বিশেষ করে শিশু ও বৃদ্ধদের জন্য এই কেমিক্যাল সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিপূর্ণ। ফরমালিন আপনার চোখের রেটিনাকে নষ্ট করে দিতে পারে। তাৎক্ষনিকভাবে  শ্বাসকষ্ট, পেটের পিড়া, ডায়রিয়া, আলসার, চর্মরোগ আস্তে আস্তে লিভার, কিডনি, হার্ট, ব্রেন সবকিছুকেই ধ্বংস করে দেয়। ফরমালিন যুক্ত খাবার খেলে পাকস্থলি, ফুসফুস, শ্বাসনালীর ক্যান্সার এমনকি ব্লাড ক্যান্সারও হতে পারে। সন্তান প্রসবের সময়ের জটিলতা, বাচ্চার জন্মগত দোষত্রুটি, প্রতিবন্ধি শিশুরও জন্ম হতে পারে। তাছারাও ফরমালিনযুক্ত খাবার নিয়মিত খেলে আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা( ইমিউন সিস্টেম) নষ্ট হয়। কিভাবে মাছ থেকে ফরমালিন দূর করবেন?*

  • পানিতে মাছ প্রায় ১ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখলে ফরমালিনের মাত্রা ৬১% কমে যায়।
  • লবনাক্ত পানিতে ফরমালিন দেওয়া মাছ ১ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখলে ৯০% ফরমালিনের মাত্রা কমে যায়।
  • প্রথমে চাল ধোয়া পানিতে পরে সাধারন পানিতে মাছ ধুলে ৭০% ফরমালিন কমে যায়।
  • ভিনেগার ও পানির মিস্রনে( পানিতে ১০% আয়তন অনুযায়ী) ১৫ মিনিট মাছ ভিজিয়ে রাখলে ১০০% ফরমালিনই দূর হয়।

কিভাবে ফল ও সবজি থেকে ফরমালিন দূর করবেন? খাওয়ার আগে ১০ মিনিট গরম লবন পানিতে ফল ও সবজি ভিজিয়ে রাখতে হবে। *তথ্যসুত্রঃ ওয়েবসাইট

Leave a Reply

Scroll To Top