You are here: Home / শখের বাগান / খড়ের স্তূপে বাগান (স্ট্র বেল গার্ডেনিং )

খড়ের স্তূপে বাগান (স্ট্র বেল গার্ডেনিং )

বাঁধাকপি

খড়ের স্তূপে বাগান (স্ট্র বেল গার্ডেনিং )

আমাদের দেশে খাদ্যচাহিদা পূরণের সবচেয়ে বড় ভুমিকা পালন করে থাকে ধান।  প্রতিবছর আমাদের দেশে ধান উৎপাদনের নতুন নতুন রেকর্ড করে আসছে। সেই সাথে সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ধান গাছ থেকে প্রধান উপজাত হিসেবে পাওয়া খড়। এই খড় আমাদের দেশে শুধু গৃহ পালিত পশুর খাবার আর ঘর বা বেড়া তৈরির জন্য ব্যবহার হয়। যদিও এখন কোথাও খড়ের তৈরি ঘর পাওয়া যাবে কিনা এ নিয়ে আছে সংশয় এবং এর বাইরে খড়ের তেমন একটা ব্যাবহার নেই। আর গবাদি পশুর জন্য এই বিপুল পরিমাণ খড়ের সবটুকু প্রয়োজন হয় না। বাড়তি খড়গুলো নষ্ট হয়। এই খড় গুলোর বিকল্প ব্যাবহার হিসেবে খড়ের গাঁদার উপর চাষ হতে পারে সর্বোত্তম উপায়। এতে আমাদের দেশের আবাদি জমির উপর যেমন চাপ কমবে তেমনি বাড়বে জমির উর্বরতা শক্তি। বিশ্বের অনেক দেশেই খড়ের গাঁদার উপর চাষাবাদ করা হয় । এই পদ্বতিটা অতি অল্প দিনের মধ্যেই ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। খড়ের গাঁদার উপর  এই বাগান স্ট্র বেল গার্ডেনিং নামেই পরিচিত।

বাঁধাকপি

স্ট্র বেল গার্ডেনিং কি ?

স্ট্র বেল গার্ডেনিং কনটেইনার বাগানের মতই একটা বিষয়। মাটির উপরে খড়ের গাদাকে উচু রেখে তার উপর চাষাবাদ করা হয় । আর  গার্ডেনিং এ বাইরে থেকে সার দিতে হয় । স্ট্র বেল গার্ডেনিং একই সাথে বহুমুখি কাজ করে এর বাইরের আবরণ কাজ করে কনটেইনারের আর ভিতরের অংশ জৈব সার  উৎপাদনের । গাছ লাগানোর পর যত দিন যায় খড় পচতে থাকে এবং তা থেকে উৎপাদিত হয় জৈব সার এবং তৈরি হয় গাছের শিকড় ছড়ানোর খুবই উপযোগি একটা পরিবেশ। এতে অনেক অনেক গুন বেশী ফলন পাওয়া সম্ভব।

স্ট্র বেল গার্ডেনিং এর সুবিধাঃ

স্ট্র বেল গার্ডেনিং এর সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে , খরচ খুবই কম বা নেই বললেই চলে, সাধারণ ক্ষেতের মত জমি তৈরির প্রয়োজন নেই। সার লাগে খুবই অল্প পরিমাণ। আগাছা উপড়ানোর প্রয়োজন নেই। থাকে গাছের গোড়ায় আলো বাতাস চলাচলের পর্যাপ্ত ব্যাবস্থা এবং খড়ের রয়েছে পানি ধারণের প্রচুর ক্ষমতা যা রবি শস্যের অধিক ফলনের জন্য প্রয়োজনীয় ।তাই মাটির গুনাগুণ যেমনই হোক না কেন খড়ের গাঁদার বাগানের মাধ্যমে বাড়ির সামনে বা পিছনে পতিত কিংবা অনাবাদি জমিতে খুব অল্প পরিশ্রমে প্রচুর ফসল উৎপাদন করা সম্ভব। আর স্ট্র বেল গার্ডেনিং এর জন্য খুব বেশি জ্ঞান বা উপকরণের প্রয়োজন নেই।

বাঁধাকপি

খড়ের স্তূপে উৎপাদিত সবজী এমনই সতেজ থাকে

স্ট্র বেল গার্ডেন পরিচর্যাঃ

স্ট্র বেল গার্ডেন পরিচর্যা খুবই সহজ যে কেহই বাগান সম্পর্কে যার ন্যুনতম কোন ধারণা নেই সে ও এর পরিচর্যা করতে পারবে । তবে স্ট্র বেল গার্ডেনিং এর জন্য ব্যাবহৃত  স্ট্র গুলো শক্ত ভাবে বাধা থাকে , একটা বিষয় অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে যে এর যেন এর বাধন যেন খুলে না যায়। নিয়মিত পানি দিতে হবে। পানি দেয়ার জন্য অবশ্যই হোস পাইপ ব্যাবহার করতে হবে। এবং নিয়মিত সার ব্যাবহার করতে হবে। খড় সংগ্রহের সময় অবশ্যই খেয়াল রাখবেন তা যেন অবশ্যই ভালো উৎস থেকে সংগ্রহ করা হয়। একবার ফসল উৎপাদনের পর খড়গুলো ফেলে দিয়ে নতুন করে বাগান তৈরি করতে হবে।

বোম্বাই মরিচ

 

 

 

স্ট্র বেল গার্ডেনের উৎপাদিত ফসলঃ

  • টমেটো
  • মরিচ
  • ক্যাপসিকাম বা বেল পিপার
  • শসা
  • স্কোয়াশ
  • কুমড়ো
  • লেটুস
  • ধনেপাতা
  • মুলা, বিট,গাজর কিংবা শালগম
  • গোল আলু মিষ্টি আলু সহ যে কোন ধরনের মৌসুমি ফসল
  • গাঁদা ফুল
  • স্ট্রবেরি

 

 

 

 

সাধারণ ভাবে অনুরবর জমিতে সব্জি চাষ করা পুরোপুরি অসম্ভব আর সব্জি চাষ করা মানেই ট্র্যাক্টর কিংবা কোদাল দিয়ে মাটি কুপিয়ে ঝুরঝুরে করা তারপর আগাছা পরিষ্কার করা। প্রচুর পরিমানে রাসায়নিক সার ব্যাবহার করা। আর স্ট্র বেল গার্ডেনিং এ জমির উর্বরতা শক্তি কেমন তা ভাবার প্রয়োজন নেই। বেচে যাবে স্রমিক খরচ,ট্র্যাক্টর কিংবা সার খরচ।  একই পদ্বতিতে আপনি গমের খড় দিয়েও চাষাবাদ করতে পারেন। স্ট্র বেল গার্ডেনিং আপনার বাগান করার ধারণাকে পুরপুরি বদলে দিবে।

তাই স্ট্র বেল গার্ডেনিং মানে হচ্ছে অল্প শ্রম, অল্প খরচ কিন্তু অধিক ফসল।

খড়ের বাগান

Leave a Reply

Scroll To Top