You are here: Home / শখের বাগান / অল্প জায়গায় ষ্ট্রবেরি চাষ করবেন যেভাবে

অল্প জায়গায় ষ্ট্রবেরি চাষ করবেন যেভাবে

ষ্ট্রবেরি

চাষের উপযুক্ত সময়ঃ অক্টোবর থেকে নভেম্বর দুই মাস ষ্ট্রবেরির চারা লাগানোর জন্য উপযুক্ত। আমাদের দেশে মুলত এই সময়টা শীতকাল। যাদের বড় করে বাগান করার মতো জায়গা আছে তারা অনায়াসেই করতে পারেন কিন্তু যাদের জায়গা নেই তারা চাইলে বারান্দা কিংবা ছাদে ছোট্ট পরিসরে ষ্ট্রবেরি চাষ করতে পারেন।

কোথায় পাবেনঃ ষ্ট্রবেরি চাষের ক্ষেত্রে সবচেয়ে যে বিষয়টি আপনাকে গুরত্ব দিতে হবে তা হলো ভালো চারাগাছ সংগ্রহ করা। যে কোন ভালো নার্সারি থেকে আপনি চারা সংগ্রহ করতে পারেন। ৩০ থেকে ৩৫ টাকার মধ্যেই আপনি ভালো চারা পেতে পারেন বা তার চেয়েও কমবেশী হতে পারে। চারা ভালো না হলে তাতে ফল নাও আসতে পারে। আমার জানা মতে ভালো চারা পাবেন বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (BARI), ব্র্যাক নার্সারি, সাভারের ফয়সাল নার্সারি, হরটারস নার্সারি, ঢাকার আগারগাও এ (নির্বাচন কমিশনের উত্তর পাশে) কৃষিবিদ নার্সারি, মোহাম্মাদপুর নার্সারিগুলোতে, কমলাপুর নার্সারিতে।

চাষের পদ্ধতিঃ বড় পরিসরে যারা ষ্ট্রবেরি করতে চান তারা বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটে(গাজীপুর) গিয়ে যাবতীয় দিক নির্দেশনা নিয়ে আসতে পারেন। আমি যখন গিয়েছিলাম তখন ওইখানে থাকা গবেষক ও পরামর্শকরা আমাকে ভালোই সহযোগিতা করেছিলেন। শুধুমাত্র যারা টবে অর্থাৎ ছোট্ট পরিসরে ষ্ট্রবেরি চাষ করতে চান তাদের জন্য কিছুটা দিক নির্দেশনা দেয়ার চেষ্টা করবো। আপনি প্লাস্টিক কিংবা মাটির টব অথবা যেকোনো ৫ লিটারের প্লাস্টিকের বতলে চারা লাগাতে পারেন। প্রচলিত টবের মাপ সাধারণত ৮/১০ ইঞ্চি হয়ে থাকে এবং সাধারন মাপই যথেষ্ট। ১টি টবে ১টি চারাগাছ লাগানোটাই আদর্শ।

গোবর  আর ড্যাপ সার ( ডাই এ্যামোনিয়াম ফসফেট) ব্যবহার করে আপনি মাটিকে উর্বর করে নিতে পারেন। এক্ষেত্রে আপনাকে কিছু লোভী নার্সারির মালিক অমুক তমুক অনেক রকমের সার ব্যবহারের পরামর্শ দিতে পারে তাতে আপনার কান না দিলেও চলবে। গোবর আপনার নিকটস্থ যে কোন নার্সারিতে পাওয়া যাবে আর একান্তই যদি ব্যবস্থা না করতে পারেন তাহলে সহজ বুদ্ধি হলো বাসায় শাকসবজির ফেলে দেয়া অংশগুলো একত্রিত করে পচিয়ে নিতে পারেন।

রোদ গাছের জন্য একটি অপরিহার্য উপাদান তাই যেখানে সরাসরি রোদ পড়ে এমন জায়গাতেই গাছ লাগান। আবার রাতের বেলা ঘনকুয়াশা পড়ে এমন জায়গাতে লাগাতে হবে। অর্থাৎ রোদ এবং কুয়াশা দুইটাই থাকতে হবে। চারাগাছ লাগনোর কিছুদিন পর নতুন করে কিছু চারা জন্মাবে যা থেকে আপনি গাছের সংখ্যা বাড়াতে পারেন কিন্তু গাছে ফুল চলে আসলে নতুন চারা না রেখে কেটে ফেলতে হবে।

টবে ষ্ট্রবেরি চাষ

যত্নআত্তিঃ অন্যান্য গাছের মতোই নিয়মিত কিছু যত্ন নিতে যেমন মরাপাতা কেতে ফেলা একটু মাটি খুচিয়ে দেয়া নিয়মিত পানি দেয়া ইত্যাদি। গাছে ফুল আসার পর থেকে যত্নের পরিমান একটু বাড়াতে হবে যেমন ফুলের নিছে অংশের মাটির উপর এমন কিছু দিন খড় বা কাপড় যাতে ফল মাটি স্পর্শ না করে, মাটি স্পর্শ করলে ফল পচে যাবার সম্ভাবনা থাকে। একটা গাছে ২০ থেকে ৩০ টা ফল পাওয়া সম্ভব। ফল পাকা শুরু হলে নেট দিতে এমন ভাবে ঢেকে দিতে হবে যাতে পাখি খেয়ে ফেলতে না পারে। পোকামাকড় হলে কীটনাশক যতটুকু সম্ভব ব্যবহার না করাই ভালো। পোকামাকড় আক্রান্ত পাতা ফল সঙ্গে সঙ্গেই কেটে ফেলে দিতে হবে। আশা করি এবার ফল খাবার পালা আর এই ক্ষেত্রে আমি আপনাকে সহযোগিতা করবোনা।

আপনি যদি আরো ভালোভাবে জানতে চান তাহলে প্রাথমিক ধারনার জন্যে বিভিন্ন নার্সারিতে  লিফলেট, বুকলেট ও বই পাওয়া যায় সংগ্রহ করে নিতে পারেন।

Leave a Reply

Scroll To Top